ফুটপাতে থাকা অভুক্ত মানুষদের মুখে খাবার তুলে দিতে নজিরবিহীন প্রচেষ্টায় প্রতিজ্ঞা ফাউন্ডেশন।

পুরুলিয়াঃ পুরুলিয়া শহরের ফুটপাতে পড়ে থাকা অসহায় অভুক্ত মানুষদের মুখে খাবার তুলে দিতে এবার নজিরবিহীন প্রচেষ্টায় এগিয়ে আসছে ‘প্রতিজ্ঞা ফাউন্ডেশন’ নামে পুরুলিয়ার একটি সমাজসেবী সংস্থা।শহরের বিভিন্ন প্রান্তের অনুষ্ঠান থেকে বাড়তি খাবার সযত্নে সংগ্রহ করে তুলে দিচ্ছে শহরের ফুটপাতে পড়ে থাকা অসহায় অভুক্ত মানুষদের মুখে।হ্যাঁ ঠিক যেমন আসানসোলের শিক্ষক চন্দ্রশেখর কুন্ডু মহাশয়।যিনি নিজ প্রচেষ্টায় বিভিন্ন অনুষ্ঠান থেক উদ্বৃত্ত খাবার সংগ্রহ করে প্রতিদিন প্রায় ২০০-৩০০ গরিব অভুক্ত মানুষদের মুখে তুলে দেন।এবার ঠিক সেইরকমেই নজিরবিহীন প্রচেষ্টাকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে পুরুলিয়ার ‘প্রতিজ্ঞা ফাউন্ডেশনে’র সদস্যবৃন্দদের।যাদের প্রচেষ্টায় এখন প্রায় দিনেই পুরুলিয়া শহরের ফুটপাতে পড়ে থাকা দুঃস্থ,অসহায় মানুষদের অভুক্ত অবস্থায় রাত্রে ঘুমোতে হয়না।

কোথাও কোন অনুষ্ঠানে বাড়তি খাবার বেঁচে গেলে ডাক পড়লেই সঙ্গে সঙ্গে সেখানে ডেকচি,কড়াই নিয়ে পৌঁছে যায় সংস্থার সদস্যরা।এছাড়াও সংস্থায় থাকা মোট ৩৭ জন তরুণ-তরুণী সদস্য সদস্যা নিজরাই হাত খরচ বাঁচিয়ে সেই টাকা জমিয়ে খাবার তুলে দেন শহরের বিভিন্ন প্রান্তে পড়ে থাকা অভুক্ত মানুষদের মুখে।মঙ্গলবার দিন সংস্থার কাছে এমনই একটি ফোন আসে পুরুলিয়া শহরের গাড়িখানা এলাকার বাসিন্দা তথা স্কুলশিক্ষক উজ্জ্বল দাসের।তিনি ফোনে জানান, তার বাড়িতে একটি অনুষ্ঠান ছিল কিন্তু সেখানে বেশ কিছু খাবার বেঁচে গেছে।উজ্জ্বল বাবুর এমন ফোন পেয়েই তড়িঘড়ি সেখানে ছুটে যান সংস্থার সদস্যরা।সেখান থেকে ভাত,ডাল, তরকারি,লুচি সহ আরও বেশ কিছু খাবার সযত্নে সংগ্রহ করে এনে পুরুলিয়া রেল স্টেশনের পাশে ফুটপাতে পড়ে থাকা অভুক্ত মানুষদের মুখে সেই খাবার তুলে দেন সংস্থার সদস্যরা।

স্কুলশিক্ষক উজ্জ্বল বাবু বলেন, “খুব ভালো লাগল সংস্থার এমন কর্মকান্ড দেখে।আমার অনুষ্ঠানের বেঁচে যাওয়া খাবার অভুক্ত মানুষদের মুখে এইভাবে তুলে দিতে পেরে গর্ববোধও করছি।আজও আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বেঁচে যাওয়া খাবার যারা আজও ফেলে দেয়।আমি তাদেরকে বলবো সেই খাবার ফেলে না দিয়ে আপনার চারপাশে থাকা অভুক্ত মানুষদের মুখে তুলে দেন।প্রয়োজনে ফোন করে জানান ‘প্রতিজ্ঞা ফাউন্ডেশন’কে।সাহায্য করতে ছুটে আসবে তারা।”

সংস্থার সভাপতি সুরোজ কুন্ডু বলেন,”আমাদের মধ্যে অনেকেই রোজ অনেক পরিমানে খাবার নষ্ট করি।রেস্তোরা,হোটেল থেকে শুরু করে বিয়েবাড়ির মতো বিভিন্ন অনুষ্ঠানে খাবার বেঁচে গেলেই সেগুলো আমরা ফেলে দিই।ফেলার আগে একটিবারও চিন্তা করি না আমাদের চারপাশে কত দুঃস্থ,অসহায় মানুষ অনাহারে, অর্ধাহারে দিনগুজরান করে।তাই সকলের কাছে আমাদের অনুরোধ,দয়া করে সেগুলো বন্ধ করুন।আপনার সেই ফেলে দেওয়া খাবার অন্য একজন অভুক্ত মানুষের একবেলার খাবারের অভাব অনায়াসে পূরণ করতে পারবে।আমরা সবাই যদি খাদ্য অপচয় বন্ধ করি তবে আরও কিছু মানুষ ভরপেট ঘুমোতে পারবে।সুরোজ কুন্ডু আরও জানান,আপনার কোনও অনুষ্ঠানে খাবার বেঁচে গেলে ফোন করুন আমাদের – ৯৭৩৫০৯৩৯৪৬ (সুব্রত দত্ত) ৭৩১৮৭৫৬৪৩৭ (সুরোজ কুন্ডু) এই নাম্বারে।অভুক্ত মানুষদের মুখে খাবার তুলে দিতে এগিয়ে আসবো আমরা।

error: Content is protected !!