পুরুলিয়ার আদ্রায় পনের দাবিতে গৃহবধূকে গায়ে আগুন লাগিয়ে খুন, গ্রেফতার শ্বশুর-শাশুড়ি।

পুরুলিয়াঃ পুরুলিয়া জেলার আদ্রায় পনের দাবিতে গৃহবধূকে গায়ে আগুন লাগিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে।ঘটনায় ইতিমধ্যেই গৃহবধুর শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।অন্যদিকে ঘটনার পরেই অভিযুক্ত স্বামী ও দেওর পলাতক হয়ে যায়।জানা যায়, কাশীপুর থানার বড়ডিহা গ্রামের মৌ মিশ্রের (২০) সঙ্গে আদ্রা থানার চাকলতা গ্রামের মৃত্যুজ্ঞয় চ্যাটার্জির বিয়ে হয় প্রায় ২ বছর আগে।জানা যায় মৌ মিশ্র ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বাও ছিল।

গৃহবধূর বাবা সুকুমার মিশ্র ঘটনার খবর পেয়েই আজ আদ্রা থানায় এসে মেয়েকে হারানোর বেদনায় কান্নায় ভেঙে পড়েন।তার অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই পনের উপর মৌ’য়ের উপর শারীরিক ও মানসিক ভাবে অত্যাচার করত তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন।কিছুদিন আগে মৌ বাপের বাড়ি যাওয়ার পর শ্বশুর বাড়ি এলে অত্যাচারের মাত্রা আরও বেড়ে গিয়েছিল তার উপর।তার শাশুড়ি নমিতা চ্যাটার্জি মৌ’কে বরাবরই বলতো তোর ছেলে হলেই তোকে মেরে ফেলবো।কিন্তু জানতাম না যে তারা সত্যিই মৌ’কে মেরে ফেলবে।তার অভিযোগ মৌ’কে গলা টিপে মেরে ফেলার পর কেরোসিন তেল গায়ে ঢেলে তার শ্বশুর,শাশুড়ি, স্বামী ও দেওর খুন করেছে।

গৃহবধূর বাবা সুকুমার মিশ্রের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তদন্তে নেমে ইতিমধ্যেই শ্বশুর অশোক চ্যাটার্জি ও শাশুড়ি নমিতা চ্যাটার্জিকে গ্রেফতার করেছে।অন্যদিকে পলাতক স্বামী মৃত্যুজ্ঞয় চ্যাটার্জি ও দেওর চন্দন চ্যাটার্জির খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।ঘটনায় মেজিসট্রেট পর্যায়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।

error: Content is protected !!