পুরুলিয়ায় বিজেপির বিক্ষুব্ধ সভামঞ্চ থেকে মমতাকে স্যালুট জানালো বিজেপির নেতারা।

পুরুলিয়া: পুরুলিয়া জেলা বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ফের আরেকবার এলো প্রকাশ্যে। “হিটলারি কায়দায় চলছে পুরুলিয়া জেলা বিজেপি। বিজেপির পুরুলিয়া জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী শাসক দলের কথামতো দল চালাচ্ছে।” এবার একের পর এক এমনই অভিযোগ তুলে পুরুলিয়া ট্যাক্সি স্ট্যান্ড এ একটি জনসভা করল পুরুলিয়ার বিক্ষুব্ধ বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা।

“মোদী তুমসে মেরা বৈর নেহি, পুরুলিয়া জেলা বিজেপি তেরা খের নেহি।” এবার এমন স্লোগান তুলে এদিন তারা জেলা বিজেপির সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন।পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একের পর এক উন্নয়নমূলক কাজ কেও ঐদিন তারা স্যালুট জানান।

প্রসঙ্গত, আদি ও নতুন বিজেপির মহিলা মোর্চার গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের সদ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরালকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে।জানা যায়, সম্প্রতি বিজেপি জেলা কার্যালয়ে একটি অনুষ্ঠান চলাকালীন মহিলা নেতৃত্বদের মধ্যে শুরু হয় ধস্তাধস্তি ও মারা মারি।সূত্রের খবর জেলা মহিলা মোর্চার নেত্রী বাবলী ব্যানার্জিকে অনুষ্ঠান চলাকালীন জেলা বিজেপির আরেক মহিলা নেত্রী কাবেরী চ্যাটার্জির গোষ্ঠীর মহিলারা ঘিরে ধরে শুরু হয় মারপিট ধস্তাধস্তি।এদিন জেলা বিজেপি কার্যালয়ে সেই সময় উপস্থিত ছিলেন বিজেপি জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চ্যাটার্জি। ভিডিও ভাইরাল ঘিরে জেলা জুড়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর।

অন্যদিকে বিজেপির আরো দুই কর্মী নির্মল কেসরী ও বাবাই সেনকে ফেসবুকে পুরুলিয়া জেলা বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা গিয়েছে।পুরুলিয়া জেলা বিজেপির সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একের পর এক পোস্ট করতে দেখা গেছে তাদের।

error: Content is protected !!