বিদ্যুতের ঘাটতি পূরণ করতে পুরুলিয়ায় তৈরি হচ্ছে চারটি বৃহৎ সৌরবিদ্যুৎ প্রজেক্ট।

পুরুলিয়া: পুরুলিয়ায় সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। ছররা, সাঁওতালডি,বাঘমুণ্ডি ও কাতলাগড়ে প্রকল্পের কাজ শুরু হতে চলেছে। সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনে এই জেলার অর্থনৈতিক উন্নতিসাধন হবে,এই আশা রাখছে পুরুলিয়া জেলা প্রশাসন।


পুরুলিয়ায় সৌরশক্তিকে কাজে লাগিয়ে ছররাতে সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজ চলেছে। বর্তমানে প্রকল্পের কাজ প্রায় শেষের দিকে। এই প্রকল্পে প্রায় ৬০ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে। প্রায় ৪৪ একর জায়গাজুড়ে ২৪৮৮০টি সোলার প্লেট ইতিমধ্যেই বসানো হয়ে গিয়েছে। এই মুহূর্তে প্রতিদিন ৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। প্রকল্পের কাজ শেষ হলেই ৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে বলে আাশাবাদী ইঞ্জিনিয়ররা। ইতিমধ্যে পুরুলিয়ার সাঁওতালডিতেও সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। কেন্দ্রীয় বাজেট পেশের পর থেকে কৃষি অযোগ্য জমিতে সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের উপর জোর দিয়েছে রাজ্য বিদ্যুৎ বন্টন সংস্থা এবং জেলা প্রশাসন। পুরুলিয়ায় ছররা এবং সাঁওতালডি ছাড়াও বাঘমুন্ডি ও মানবাজার ব্লকের কাতলাগড়া এলাকা বন্ধ্যাভূমি। তাই সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য এলাকাগুলিকে নির্বাচন করা হয়েছে।

পুরুলিয়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “ছররা, সাঁওতালডিতে সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। পরবর্তীকালে এই জেলার আরও দুটি স্থান বাঘমুণ্ডি এবং কাতলাগড়ে প্রকল্পের কাজ শুরু হবে । এর ফলে সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনে পুরুলিয়া জেলা অর্থনৈতিক দিক দিয়ে উন্নতি লাভ করবে ।”এছাড়া জেলার সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পের ইঞ্জিনিয়ার সুরজিৎ দেওঘরিয়া এবং প্রকল্পের পরিচারক তাপস কুমার মাহাতো বলেন, “সকল ঋতুতেই সূর্যের তাপ বেশি পরিমাণে থাকে। তাই সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য পুরুলিয়া জেলা খুবই উপযোগী। কৃষি অযোগ্য জমিতে সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ পুরোপুরি ভাবে শেষ হলে,গোটা জেলায় বিদ্যুতের ঘাটতি পূরণ হবে।”

error: Content is protected !!